Skip to content

Month: July 2020

‘I stare at the stars to get engrossed in its mysteries’ – Snehajit Roy

Kothabriksha had conducted an interview with Photographer Snehajit Roy on his experiences of shooting the Milky Way galaxy. We are thankful to Snehajit Roy for…

প্রসঙ্গে মৌমাছি ও মধু – পর্ব ২ – সুকন্যা দত্ত

আজ প্রাচীন মিশরে মধু ও মৌমাছির গুরুত্ব নিয়ে কিছু তথ্য তুলে ধরার চেষ্টা করছি। প্রাচীন মিশরে সমাজের উচ্চ-নিম্ন সকল শ্রেণীর মানুষ মধু পান করতো, যার থেকে…

বাংলার নদী-মাঠ-ভাঁটফুলের গল্প – সম্পাদকীয়

এই না শ্রাবণ মাসে ওইনা বিষ্টি আসে – কেমন করে থাকবো বলো আঁধার ঘেরা ঘরে, ভেসে গেল বেহুলা লখাই কালনাগিনীর তরে৷  বিষহরী মা মনসা ডাকি…

“When music is the soul, rhythm is the heartbeat…” – In conversation with Ustad Sabir Khan

Ustad Sabir Khan, one of the finest exponents of Tabla and the present Khalifa of the legendary Farukkabad Gharana is the 33rd descendant of an…

প্রসঙ্গে মৌমাছি ও মধু – পর্ব ১ – সুকন্যা দত্ত

মৌমাছি ও মধু শব্দদুটি একে অপরের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। মৌমাছি ও মধুর কথা নানানভাবে বারবার উঠে এসেছে পুরাণে, ধর্মীয় পুস্তকে, রূপকথায়, লোককথায়, বিজ্ঞানে ও চিকিৎসা শাস্ত্রে। প্রত্নতত্ত্ববিদরা…

মাগো, আমি ইশকুল যাব কবে ? – সম্পাদকীয়

কাঁধে স্কুলব্যাগ ঝুলিয়ে, গলায় জলের বোতল ঝুলিয়ে কাঁদতে কাঁদতে প্রথম দিনের স্কুল। ভয়ে ভয়ে বেঞ্চিতে বসা। অচেনা সবাই আশেপাশে। তারপর দিদিমণি এলে, প্রেয়ার শুরু করে…

দুটি কবিতা – রূপক বর্ধন রায়

ধর্ষক যতবার যুদ্ধ বুকে, প্রেমকে খোঁজোনি,হেসেছে ইতিহাস, তোমার পৌরুষ মানেনি।মৃত্যুর দোহাই দাও, ধর্ম-জাতেস্বভাবে ঘৃণাই খাও, অভাব ভাতের।তুমি তো রক্ত ঘাটো ভাবাদর্শ বুঝে,যে শেয়াল কাটে দেহ, সেও খাদ্য খোঁজে।ভেবেছ, পুরুষ তাই দেশ ধর্ম আগেমানুষী অশুচী, তাই ঘৃণা তার ভাগে।যাকে কাটো, ভগ্নপ্রায় নারী বা পুরুষ,শরীরে আলাদা শুধু, মননে মানুষ;যে তুমি নারী দেহে শত ক্ষত আঁকতে পারো,আছে দ্বেষ, ধর্ম দেশ নেই জেনো তোমারো।যে পুরুষ পিতৃতন্ত্রে নীরব দর্শকমুখোশে মানুষ সে, মননে ধর্ষক। শেষ মহীরূহ অন্তিম গাছটা;  অনন্ত মরুদ্যান রূখে দাঁড়িয়ে আছে ;বুড়িয়েছে কবিতার শহর, প্রাচীন অরণ্য ফুরিয়েছে।কবিতার আকাশেও মেঘ নেই, চড়ে শুধু ধোয়া;শেষ কবিতারও তাই শেষ গাছে এই চিঠি দেওয়া। হে মহীরূহ;তোমার  প্রশাখা জুড়ে যে প্রাণেরা বাসা বেধে ছিল,তোমার ছায়ায় শুয়ে যে কবিরা রাত্রি জেগেছে,তোমার শেকড় জুড়ে যে ধরণী প্রসবিনী হলতাদের দোহাই তুমি থামাও এ অন্তর্জলী,তাদের জন্য ফের কবিতাকে ভরো গাছে গাছে!এ পৃথিবী কবিতার, সবুজের, মানুষ তো অনুজীবী,অপত্য, অপক্ক মনে, বীজ বোনে শুধু  ক্ষমতার।তুমি তো আকাশমনা, বাৎসল্যে মেনে নাও সবই ,ওরা বোঝেনি শেষের কথা, বৃক্ষ-কবিতা সমতার।রুক্ষ কুঠারাঘাতে,  এক একটা যুদ্ধ মেয়াদে,কেড়েছে তোমার বন, পুড়িয়েছে নিজ নিজ গৃ্‌হ,মানুষ পূর্ণতা পাক; ভালবাসা, প্রেম, অনুভবে;শাসনে শুদ্ধ কর,  বেঁচে ওঠো শেষ মহীরুহ । 

বাংলা সিনেমায় কমেডি – সৌরভ জানা

“সামালকে জাপানি স্যুটকেশ” টকটকে লাল রং তার। ফেলুদা’র সাথে প্রথম সাক্ষাতের দৃশ্যটা চোখ বুজে মনে করলেই পেট পেঁচিয়ে হাসি পায়না, এমন বাঙালি বিরল। কিংবা “মাসীমা…

%d bloggers like this: