Skip to content

ও চাঁদ – অমিত গুহ

বুকের কাছে থৈ থৈ করে জল
ঝড়ের হাওয়ায় উড়েছে ঘরবাড়ি,
আমিনা তবুও চুল শুকোতে বসে,
আমিনা তবুও ফ্যান চায় ভাঙা হাঁড়ি।

আজি তো পরব, আজি তো উঠবে চাঁদ,
চাঁদিনী রুপোয় ভরে যাবে গ্রাম জমি,
আজি তো ছেলেটা দুমুঠো ভাত চায়
অজি তো মেয়েটা জামা নেই পিঠ খালি।

ত্রাণের ছাতুতে ইফতার সেরে নেবে
আমিনা জানেনা কতো রাত আর বাকি
গ্রাম ছেড়ে ওই পালিয়ে আসার সময়
হাত ছেড়েছে কোলের শিশু রাকি।

গ্রামের পরে গ্রাম চলে যায় আজ,
ভাসতে ভাসতে ভাসায় দেশ খানি,
বাসন্তী গোসাবা সাগর দ্বীপের পর
আরো নাকি আছে আরো নাকি ভাসা বাকি ?

ওরে ও মিনতি, ওরে ও হারার মা
তোরা কি জানিস আমার মরদ কোথায় ?
ছেলেটি খুঁজতে ডুব দিলো সেই জলে,
জানিনা দুজন কোন দেশে ভেসে যায়।

জানিনা, তারা যাবেকি কাবার পার
জানিনা, সে দেশে ত্রাণ পৌঁছায় কিনা
জানিনা, সে দেশে গঙ্গা জলের স্রোতে
নামাজ পড়ায় কোন নবী কোন মিঞা।

জানিনা, এখনো ক্ষেত দুটি আছে কিনা
জানিনা, সে খানে বাঁধা আছে কিনা মোর গাভী
জল নামলেই রেঁধে বেড়ে নেবো আজ
জল নামলেই ফিরে পাবো মোর বাড়ি।

এখনো জানিনা চাঁদ কোন দেশে আছে,
এতো মেঘ কেন বাঙলার সারা গায়ে,
জানিনা কখন মেঘের বুক চিরে
চাঁদ হাসবে রেশন কার্ডের গায়ে।

চিত্রঋণ: Express.co.uk

Published inPoetry

Be First to Comment

Leave a Reply

%d bloggers like this: